চন্দনাইশ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বৃক্ষরোপণ করেন বাংলাদেশ সাংবাদিক ঐক্য ফোরাম চন্দনাইশ উপজেলা

চন্দনাইশ

চন্দনাইশ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বৃক্ষরোপণ করেন বাংলাদেশ সাংবাদিক ঐক্য ফোরাম চন্দনাইশ উপজেলা

চন্দনাইশ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বৃক্ষরোপন কর্মসূচি পালন করেন চন্দনাইশ উপজেলার সাংবাদিক ঐক্য ফোরামের নেতৃবৃন্দ। আজ ০৮ আগষ্ট (শনিবার) সকালে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেরসামনে এ বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির মাধ্যমে গাছ রোপন করেন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। এতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি মো.আবু তোরাব চৌধুরী। প্রধান অতিথি ছিলেন চন্দনাইশ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা.শাহীন হোসাইন চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন দোহাজারী প্রেস ক্লাবের সাধারন সম্পাদক এম নাছির উদ্দীন বাবলু, সহ-সাধারণ সম্পাদক আজগর আলী সেলিম, সাংবাদিক ঐক্য ফোরামের সাধারন সম্পাদক মো.কমরুদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক মো.আমিনুল ইসলাম রুবেল, সদস্য যথাক্রমে খালেদ রায়হান, মো.আবদুর রহিম রনি,মো.জাহিদুর রহমান চৌধুরী, মো.আনোয়ার হোসেন আবির প্রমুখ। এই সময় বলেন, পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় বৃক্ষ সক্রিয় ভূমিকা পালন করে। সুস্থ্য জীবনের জন্য নির্মল বায়ু ও অক্সিজেন দান করে গাছ। এসব গাছ বড় হলে পরিবেশ ও প্রতিবেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে। পরিবেশের ভারসাম্য ও সুষম জলবায়ুর প্রয়োজনে একটি দেশের মোট আয়তনের অন্ত ২৫ শতাংশ বনভূমি থাকা আবশ্যক। তিন দশমিক পাঁচ বিলিয়ন কিউবিক মিটার কাঠ ব্যবহার করে প্রতিবছর আট হাজার বর্গহেক্টর বনভূমি ধ্বংস করছে পৃথিবীর মানুষ। বনভূমি ধ্বংস হওয়ার ফলে পৃথিবীর উত্তর-দক্ষিণ এবং পূর্ব-পশ্চিমের বহু বন্যপ্রাণী ও সামুদ্রিক প্রাণী বিলুপ্ত হয়েছে। এশিয়া, আফ্রিকা, লাতিন আমেরিকার বিস্তৃত এলাকার মরুময়তা রোধে ২০ হাজার হেক্টর ভূমিতে বনায়ন-বৃক্ষায়ন করা প্রয়োজন। বাংলাদেশে প্রয়োজনের তুলনায় বনভূমি খুব কম। তদুপরি জনসংখ্যা বৃদ্ধির সঙ্গে বনভূমি কাটার মাত্রাও ক্রমে বেড়ে যাচ্ছে। প্রকৃতির ভারসাম্য ঠিক রাখার জন্য কোনো দেশের মোট ভূমির ২৫ শতাংশ বনভূমি থাকা উচিত।

Leave a Reply